বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কঃ যে সমীকরণ আজও মেলেনি


নিচের কয়েকটা লাইন পড়লেই বুঝতে পারবেন বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের আসল চেহারা। তার পরেও আমাদের মন্ত্রীরা এখনো ভারতীয় দাদা বাবু বলতে অজ্ঞান। কবে যে তাদের হুশ হবে সেটা মহান আল্লাহ্‌ পাক-ই জানেন।

india-bangladesh-flag_2

১/ বাংলাদেশের ওপর দিয়ে ভারতকে ইতিমধ্যেই স্থল ও নৌ ট্রানজিট প্রদান করা হয়েছে। এতে করে সেভেন সিস্টার্সে যাবার জন্য ভারতের যানবাহনের জ্বালানী খরচ কমেছে ক্ষেত্রভেদে ৮৫% হতে ৫৮% এবং সময় কমেছে ১৬ ঘন্টা। অথচ বিনিময়ে আমরা তিস্তা নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা তো পাই নি, উল্টো ৩৪ টি নদীতে বাঁধ দিয়ে বাংলাদেশকে পানিশূন্য করা হচ্ছে।

২/ বাংলাদেশের সুন্দরবন ধ্বংশ করার জন্য ভারতে নিষিদ্ধ কোম্পানী এনটিপিসি’কে রামপালে কাজ করার অনুমতি দেয়া হয়েছে। জমি বাংলাদেশের, ৮৫% মূলধন বাংলাদেশের, অথচ মাত্র ১৫% মূলধন হিসেবে কারিগরি সহায়তা প্রদান করে ভারতীয় এই কোম্পানী লাভের ৫০% শেয়ার পাবে!

৩/ বাংলাদেশের বিদ্যুৎ সমস্যা থেকে উত্তরণে বিদ্যুৎ ভারত বিদ্যুৎ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও, তা আজো আলোর মুখ দেখেনি।

৪/ একাধিক চুক্তি হওয়ার পরও ছিটমহল বিনিময় দিচ্ছে না ভারত। দোহাই দেয়া হচ্ছে ভারতের সংসদ ও আইনের। অথচ বাংলাদেশ চুক্তি মোতাবেক সকল ছিটমহল ভারতের কাছে হস্তান্তর করেছে।

৫/ সীমান্ত হত্যা এখনো বন্ধ করেনি ভারত সরকার। প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে মৃত্যু নিশ্চিতের জন্য এখনো ব্যবহার করা হচ্ছে মেটাল বুলেট।

৬/ বাংলাদেশের অধিকাংশ টিভি চ্যানেল ভারতে দেখা না গেলে তাদের প্রতিটি এখানে চলছে বহাল তবিয়তে। এমনকি এখানকার বিজ্ঞাপন প্রদান বাবদ তারা কোটি কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছে নিজ দেশে।

৭/ শুল্কমুক্ত পণ্য রফতানির সুযোগ পেলেও অশুল্ক বাধা আরোপ করে এ প্রক্রিয়াকে পরোক্ষভাবে বাধাগ্রস্ত করা হচ্ছে।

৮/ টিপাইমুখ বাঁধসহ অভিন্ন নদীর পানিবন্টন সমস্যার সমাধান হয়নি এখনো।

৯/ আইটি খাতেও ভারতের বিনিয়োগ ও আধিপত্য বাড়ছে। দেশের পর্যটন ও হোটেল ব্যবসা ধীরে ধীরে ভারতের হাতে চলে যাচ্ছে।

১০/ বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের অনুমতির তোয়াক্কা না করেই নারায়নগঞ্জে নদী বন্দর নির্মানের টেন্ডার ডেকেছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়।

তারপরও এখন বাংলাদেশ সরকার ভারতকে তার সেভেন সিস্টার্সের জন্য টেলি করিডোর দিতে যাচ্ছে এবং মিয়ানমার থেকে গ্যাস আমদানীর জন্য বাংলাদেশের ওপর দিয়ে পাইপ লাইন বসানোর অনুমতি দিতে যাচ্ছে। মেরা ভারত মহান।
—————————-

1/ http://www.mzamin.com/details.php?nid=NTc1OTI%3D&ty=MA%3D%3D&s=MTg%3D&c=MQ%3D%3D
2/ http://www.amadershomoy2.com/content/2013/06/07/middle0881.htm

তথ্যসূত্রঃ একেএম ওয়াহিদুজ্জামান

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s